করোনায় আক্রান্ত আ’লীগ নেতার মৃত্যু, প্রধানমন্ত্রীর শোক

রাজনৈতিক নিউজ সারাদেশ নিউজ

বরগুনার আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জিএম দেলওয়ার হোসেন (৭২) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।
শুক্রবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শংকর প্রসাদ অধিকারী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে পৌরসভার লোচা গ্রামের বাড়িতে শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে তিনি মারা যান।


করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যুর ঘটনায় আমতলী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে লোচা এলাকা লকডাউন করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। মানুষকে সচেতন করতে মাইকিং করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।


জানা গেছে, আমতলী উপজেলার প্রবীণ রাজনীতিবিদ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জিএম দেলওয়ার হোসেন গত মঙ্গলবার শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে আক্রান্ত হন। বুধবার তাকে আমতলী উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।


বুধবার তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা তার করোনাভাইরাস সন্দেহে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকা রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের (আইইডিসিআর) পাঠিয়ে দেন। ওই হাসপাতাল থেকে তাকে ওইদিনই বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার সময় তার মৃত্যু হয়।


তার মৃত্যুর খবর উপজেলার সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সাধারণ মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। তার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বরগুনা সংসদ ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু শোক জানিয়েছেন।
তার লাশ দেখতে উপজেলার হাজার হাজার নেতাকর্মী তার বাড়িতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জমায়েত হন।
খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন, এএসপি (আমতলী-তালতলী সার্কেল) সৈয়দ রবিউল ইসলাম ও আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে পুলিশ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাতে আগত নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সন্দেহে তার বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেন। ওইদিন বিকালে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তার লাশ দাফন করা হয়।
এ দিকে শুক্রবার দুপুরে জিএম দেলওয়ার হোসেনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এমন প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অফিসে আসে। তাৎক্ষণিক তিনি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীনকে জানায়।


নমুনা প্রতিবেদন করোনাভাইরাসে তার মৃত্যু হয়েছে এমন খবরে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। উপজেলা প্রশাসন আমতলী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড লোচা এলাকা লকডাউন করে দিয়েছে। মানুষকে সচেতন করতে ওই এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মাইকিং করেছে।
আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, লকডাউন এলাকা পুলিশের নজরদারীতে রাখা হয়েছে। ওই এলাকায় কেউ প্রবেশ এবং বের হতে পারবে না।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শংকর প্রসাদ অধিকারী বলেন, জিএম দেলওয়ার হোসেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তার নমুনা প্রতিবেদন পজিটিভ এসেছে।


আমতলীর ইউএনও মনিরা পারভীন বলেন, জিএম দেলওয়ার হোসেনের করোনাভাইরাসের নমুনা পাওয়া গেছে। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এলাকার মানুষকে সচেতন করতে মাইকিং করা হয়েছে।
বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, জিএম দেলওয়ার হোসেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ায় তার বাড়ির এলাকা আমতলী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড লকডাউন করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, তার সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়। প্রয়োজন অনুসারে তার সংস্পর্শে যারা এসেছে তাদের রক্ত পরীক্ষা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *